বিশ্বের শীর্ষ সংবাদ ভিত্তিক ইউটিউব চ্যানেলের তালিকায় যমুনা টিভি


বিশ্বের শীর্ষ সংবাদ ভিত্তিক ইউটিউব চ্যানেলের তালিকায় যমুনা টিভি

সংবাদ ভিত্তিক ইউটিউব চ্যানেলের তালিকার বিশ্বের সেরা দশে উঠে এসেছে বাংলাদেশের যমুনা টেলিভিশন। সেরা দশে আসতে যমুনা টিভি পেছনে ফেলেছে বিবিসি, আল জাজিরা, জি নিউজের মতো আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমকে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সোশ্যাল মিডিয়া বিশ্লেষক সাইট ‘সোশ্যাল ব্লেড’-এর করা এ তালিকায় ছয় নাম্বারে রয়েছে যমুনা টেলিভিশনের ইউটিউব চ্যানেল। সাবস্ক্রাইবারের পাশাপাশি চ্যানেলের কন্টেন্টের ভিউ, ফিডব্যাক ও সামগ্রিক প্রভাব বিবেচনা করে তালিকাটি প্রকাশ করে তারা। 

২০১৪ সালে টেলিভিশন চ্যানেল হিসেবে যাত্রা শুরু করলেও যমুনা টেলিভিশনের ইউটিউব চ্যানেল যাত্রা শুরু করে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে। মাত্র সাড়ে তিন বছরে ৫০ হাজার ভিডিও আপলোড করে ৭৩ লাখ সাবস্ক্রাইবার পেয়েছে চ্যানেলটি। চ্যানেলের সর্বোমোট ভিউ প্রায় চার কোটি।

সোশ্যাল ব্লেডের তথ্য অনুযায়ী এই চ্যানেলের মাসিক আয় আনুমানিক পঁচাত্তর লাখ থেকে আট কোটি টাকা! 

এরআগে ‘নিউজ এন্ড পলিটিক্স’ ক্যাটাগরিতে বিশ্বের সেরা পাঁচে ছিল যমুনা টেলিভিশন। এবারের তালিকায় ছয় নম্বরে থাকা যমুনা টেলিভিশনের পেছনে ১৫ নম্বর অবস্থানে জি নিউজ, ১৮ নম্বরে এনডিটিভি, আল জাজিরা ৫৪ ও বিবিসি’র অবস্থান ৬৯-এ।

 

এ বিষয়ে যমুনা টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক ফাহিম আহমেদ বলেন, “এটি বিশাল আনন্দের আমাদের জন্য। বাংলাদেশের একমাত্র নিউজ চ্যানেল হিসেবে আমরা টপ টেনে আছি। ধন্যবাদ জানাতে চাই আমাদের দর্শকদের, যারা আমাদের প্রতিনিয়ত উৎসাহ জোগান, ভালোবাসেন। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা আমাদের। সেই সাথে ধন্যবাদ জানাই আমাদের বিজ্ঞাপনদাতাদেরও, যারা করোনাক্রান্তিতে টেলিভিশনের পাশাপাশি ডিজিটাল প্লাটফর্মেও আমাদের পাশে ছিলেন”। 

যমুনা নিউমিডিয়ার ইনচার্জ রুবেল মাহমুদ বলেন, “মানুষকে তাৎক্ষণিকভাবে আকৃষ্ট করার জন্য বিভ্রান্তিকরভাবে কন্টেন্ট উপস্থাপন না করে টেলিভিশনের মতো ডিজিটাল প্লাটফর্মেও আমরা নিউজরুম এথিকস ফলো করি। সেটিই মানুষের কাছে আমাদের গ্রহণযোগ্য করে তুলেছে”।